• 220

বাংলাদেশি মালিকানাধীন বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু

বাংলাদেশি মালিকানাধীন বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু

ইনোভেটিভ গ্লোবাল ইউনিভার্সিটির উদ্বোধন করা হচ্ছে

যাত্রা শুরু হলো যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশি মালিকানাধীন প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় ইনোভেটিভ গ্লোবাল ইউনিভার্সিটির। ২৭ ফেব্রুয়ারি শনিবার ভার্জিনিয়ায় আনুষ্ঠানিকভাবে এর উদ্বোধন করেন দেশটিতে সফররত বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডক্টর এ কে আবদুল মোমেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ থেকে পড়তে আসতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতি বছর প্রায় দুই কোটি টাকার শিক্ষা বৃত্তি ঘোষণা করেছে প্রতিষ্ঠানটির কর্তৃপক্ষ। সেই সঙ্গে ডক্টর আবদুল মোমেনের নামে ব্যাচেলর ও মাস্টার্স পর্যায়ে দুটি স্কলারশীপও দেওয়া হবে। 


বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তীতে বাংলাদেশি মালিকানায় প্রতিষ্ঠিত প্রথম এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি প্রবাসে বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য অনন্য এক উদ্যোগ বলে আখ্যা দেন মন্ত্রী।আই গ্লোবাল বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আবুবকর হানিপ বলেন, তার প্রতিষ্ঠিত পিপলএনটেক নামের আইটি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মাধ্যমে সাত হাজার প্রবাসীকে ভাল বেতনে চাকরির ব্যবস্থা করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়েও তিনি এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগাবেন।


অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম. শহীদুল ইসলাম, ভয়েস অব আমেরিকা বাংলা বিভাগের প্রধান রোকেয়া হায়দার, আইজিইউ প্রফেসর ডক্টর মিখায়েল কব, চিফ ফিনান্সিয়াল অফিসার ফারহানা হানিপ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের দুজন শিক্ষার্থী অমিত গুপ্ত ও নাতালিয়া জ্যাগোন বক্তব্য রাখেন।


এই বিশ্ববিদ্যালয়ে সাইবার সিকিউরিটি বিষয়ে মার্স্টার্স ও সায়েন্স অ্যান্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি এবং বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনে মাস্টার্স এবং ব্যাচেলর ডিগ্রি রয়েছে। এছাড়া কম্পিউটার ও আইটি বিষয়ে বেশ কিছু সার্টিফিকেট কোর্স রয়েছে। শিগগিরই হেলথ কেয়ার, নার্সিং, ডেটা সায়েন্স ও আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স বিষয়েও বেশ কয়েকটি কোর্স চালুর পরিকল্পনা রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির।


২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত এই বিশ্ববিদ্যালয়টি বিজ্ঞান, ব্যবসা ও প্রযুক্তি শিক্ষার জন্য এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপের শিক্ষার্থীদের কাছে বিশেষভাবে পরিচিত। এখন থেকে এটি বাংলাদেশিদের শিক্ষা ক্ষেত্রেও অনন্য অবদান রাখবে বলে মনে করছেন প্রবাসীরা।  

আপনার মতামত লিখুন :