• 57

কোন টিকার কত দাম

কোন টিকার কত দাম

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের টিকার সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছে ভারতের তৈরি করোনা টিকা। যা  দামে সস্তা, আবার নিরাপদও। ১৬ জানুয়ারি শনিবার থেকে ভারতে শুরু হচ্ছে গণহারে টিকা প্রদান কার্যক্রম। প্রথম দফায় তিন কোটি মানুষকে টিকাদানের আওতায় নিয়ে আনতে ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিন ও অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা সংস্থার তৈরি কোভিশিল্ড টিকা প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।


কোভিশিল্ড ও কোভ্যাক্সিন বেছে নেওয়ার কারণ সম্পর্কে ভারতের নীতি আয়োগের সদস্য (স্বাস্থ্য) বিনোদ পাল জানান, কার্যকারিতা ও সুরক্ষার প্রশ্নে ভারতের দুই টিকাই নিরাপদ। পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই বললেই চলে। এছাড়া বিশ্বের অন্য প্রতিষেধকের তুলনায় তা দামে সস্তা।


ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সেরাম থেকে ভারত সরকার প্রথম ধাপে এক কোটি এক লাখ ডোজ কোভিশিল্ড কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গড়ে কোভিশিল্ডের দাম পড়ছে প্রতি ডোজ পিছু ২০০ টাকা।


সেরামের সিইও আদার পুনাওয়ালা জানান, গরিব মানুষের কথা ভেবে তাঁরা ভারত সরকারকে ডোজ পিছু ২০০টাকা করে ১০ কোটি ডোজ বিক্রি করবেন।


তবে এরপর থেকে বাজারে প্রতি ডোজ ১ হাজার টাকা করে বিক্রি করা হবে বলে জানান তিনি।


ভারত বায়োটেকের কাছ থেকে শুরুতে ৫৫ লাখ কোভ্যাক্সিন নেবে ভারত। এর মধ্যে ভারত কিনবে ৩৮ লাখ ৫০ হাজার ডোজ। ভারত বায়োটেক ১৬ লাখ ৫০ হাজার বিনামূল্যে দেবে। আর এই ভ্যাকসিনের দাম পড়বে প্রতি ডোজ় ২৯৫ টাকা। এতে করে গড়ে প্রতি ভ্যাকসিনের দাম পড়বে ২০৬ টাকা।  


জানা গেছে, কোভিশিল্ড ও কোভ্যাক্সিনহ ভারতে প্রায় ১০টি ভ্যাকসিন জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের অনুমতি পেয়েছে।


ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে অন্যান্য টিকাগুলো মূল্য- ফাইজার টিকা ভারতীয় মূল্য প্রায় ১৪৩১ টাকা। মডার্নার দাম পড়বে ২৩৪৮-২১৭৫ টাকা। চীনের সিনোভ্যাক বায়োটেকের তৈরি করোনাভ্যাক ১ হাজার ২৭ টাকা দাম পড়বে।  রাশিয়ার স্পুতনিক ভি এবং জনসন ও জনসন টিকা দাম ৭৩৪ টাকা। নোভাভ্যাক্সের দাম পড়ছে ১১১৪ টাকা।

আপনার মতামত লিখুন :