• 213

সবাই মিলে ভোট দিলে বিজয় আসবেই

সবাই মিলে ভোট দিলে বিজয় আসবেই

দরজায় কড়া নাড়ছে নিউইয়র্ক সিটির ডিস্ট্রিক্ট-২৪ এর বিশেষ নির্বাচন। ২৩ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া আগাম ভোট চলবে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। আগামী ২ ফেব্রুয়ারি হবে ইনপারসন ভোট। এই নির্বাচনে লড়াই করছেন ৪ জন বাংলাদেশি প্রার্থী। প্রার্থীরা হলেন- দিলীপ নাথ, সোমা সায়ীদ, মুজিব রহমান ও মোমিতা আহমেদ।


প্রার্থীর চারজনই মেধাবী এবং নানা সামাজিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত। বিভিন্ন সময় কমিউনিটির মানুষকে সহযোগিতা করে আসছেন তারা। কিন্তু ভোটাররা এখন কাকে কাকে জয়ী করবেন এবং কীভাবে জয়ী করবেন সেটাই বড় প্রশ্ন। কেননা একাধিক প্রার্থী হওয়ায় ভোটগুলোও ভাগ হয়ে যাচ্ছে। কমছে বাংলাদেশি প্রার্থীদের জয়ের সম্ভাবনা।


বাংলাদেশি প্রার্থীদের জয় নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে ল’ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক আরিফুর চৌধুরী এফএম-৭৮৬কে বলেন, আমার জানামতে ডিস্ট্রিক্ট-২৪ এর নির্বাচনে বাংলাদেশি প্রার্থী চারজন। এটি আমাদের জয়ের জন্য ক্ষতিকর। ঐক্যবদ্ধ হয়ে একজন প্রার্থী দাঁড় করাতে পারলে জয়টা সহজ ছিল।


জ্যামাইকা বাংলাদেশ ফ্রেন্ড সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান সভাপতি মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার বলেন, প্রার্থী দেয়ার ক্ষেত্রে আমাদের সাউথ এশিয়ানদের একতা আবশ্যক। আমাদের প্রার্থীদের এটা অনুভব করতে হবে এ বিজয় আমাদের অধিকার। কেননা প্রশাসনে আমাদের একজন কথা বলার লোক থাকা খুব প্রয়োজন। তাই এভাবে একাধিক প্রার্থীর মাধ্যমে জয়কে শঙ্কায় পরিণত আমাদের জন্য কল্যাণকর নয়।


বাংলাদেশ সোসাইটির ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট আবদুর রহীম হাওলাদার বলেন, আমি একজন ডেমোক্রেট লিডার হিসেবে বাংলাদেশি প্রার্থীর জয় চাই। তবে প্রার্থী একজন হলে ভাল হতো। জয় সহজ হতো। তবুও আমি সবাইকে বলবো, ভোট দিন। বাংলাদেশি প্রার্থীকে বিজয়ী করুন।


নিউইয়র্কের আইটি স্পেশালিস্ট সৈয়দ এম আলম বলেন, চার জন বাংলাদেশি প্রার্থী যদি এক জায়গা থেকে দাঁড়ায় তাহলে তো বাংলাদেশিদের ভোটই কয়েক ভাগ হয়ে যাচ্ছে। এটি কমিউনিটির জন্য ভাল কিছু বয়ে আনবে না। আমার মতে নির্বাচনের আগে সব বাংলাদেশি প্রাথীকে এক সঙ্গে করে ডিবেইট করানো উচিৎ। আর এ ডিবেইটের বিচারক থাকবেন অভিজ্ঞ একটি প্যানেল। বিশ্বস্ততার সঙ্গে রায় দিয়ে প্যানেল যাকে নির্বাচনে অংশ নিতে বলবে। সে একজন প্রার্থীকে নির্বাচন করা উচিৎ। তাহলে আমাদের বাংলাদেশি কমিউনিটি একজন বিজয়ী প্রাথী পেতে পারে।

আপনার মতামত লিখুন :