• 118

শাইখ আব্দুল কাইয়ূম হাসপাতালে: দোয়ার আহবান

শাইখ আব্দুল কাইয়ূম হাসপাতালে: দোয়ার আহবান

দুঃখ আর ভারাক্রান্ত হৃদয়ে বলতে হচ্ছে ইস্ট লন্ডন মাসজিদের ইমাম শাইখ আব্দুল কাইয়ূম আজ হাসপাতালে ভর্তি হলেন, করোনাভাইরাসের আক্রমণে শরীরের অবস্থার একটু অবনতি হয়েছে তাঁর। لا بأس طهور إنشاء الله  এদিকে উনার ভাই আব্দুল বাতিনও ICU তে রয়েছেন। শাইখের মনোবল এবং ঈমানী শক্তি খুবই প্রবল, দোয়া করি চরম এ দুঃসময়ে আল্লাহ তা আরো বাড়িয়ে দেন। তিনি মাসজিদের ইমাম হবার পর থেকে تجديد (সংস্কার) এর কাজ শুরু করেন। ঘুণে ধরা এ বিলেতের সমাজ থেকে শিরক, বিদয়াহ, ড্রাগ ও অসামাজিক কার্যকলাপের বিরুদ্ধে তাঁর বৈপ্লবিক অবদান অনন্য। 

চ্যানেল এসের আমাদের Islam Essentials অনুষ্ঠানের তিনি অন্যতম প্রধান আলোচক, তাঁর যাদুকরি কথায় এদেশে অনেক মানুষ দ্বীনের পথে এসেছে, দাওয়াতী জিন্দেগিতে তাঁর বিচরণ অনেক দিন থেকে। আমার সাথে তাঁর সম্পর্ক-আধ্যাত্মিক, ইলমের, ব্যক্তিগত, অনেক জিনিস আমরা একে অপরে শেয়ার করি। আজ তাঁর হাসপাতালে যাওয়া শুনে মনটা খুব খুব খারাপ হয়ে গেলো। কিছুতেই যেনো শান্তি পাচ্ছি না। কান্না পাচ্ছে, ভীষন কান্না পাচ্ছে! কতো স্মৃতি ভেসে উঠছে মনের মনিকোঠায়। 



যতবার আমার উসতাজ  কা’বার প্রধান ইমাম শায়খ ড. আব্দুর রাহমান আস সুদাইসের সাথে তাঁর অফিসে দেখা করি তিনি শাইখ আব্দুল কাইয়ূমের ব্যাপারে খোঁজ খবর নেন। রতনে রতন চেনে বলে কথা। বর্তমান বিশ্বের একজন অন্যতম শ্রেষ্ঠ আলিম শাইখ আব্দুল কাইয়ূম; তাঁর মতো আলিমের দরকার আছে এ সমাজে। তাঁর খুতবাহ, তাফসীর, হালাকাহ, দারস খুবই উপভোগ্য। বিশেষ করে প্রতি মাসে এক রোববারের উলামাদের হালাকায় -আমরা এখন জুমে অংশ নেই, তিনি  مناع القطان  এর علوم القرآن বইটি পড়ান, যেটি আমরা মাককাহতে পড়েছিলাম মরহুম ড. শাইখ আবদুল্লাহ আবদুর রাশীদের رحمه الله কাছে। কিন্তু শাইখ আব্দুল কাইয়ূমের পড়ানের মানহাজটা অসাধারণ, তা হালাকায় অংশ নেয়া আলিমরা বলতে পারবেন। এছাড়াও তিনি প্রতি বুধবারে المغني কিতাব থেকে محاضرات দেন, যা সত্যিই বিরল। 



আজ আমাদের সেই প্রিয় শাইখ হাসপাতালের শয্যাশায়ী! হায় করোনাভাইরাস! তুমি কাউকে আর বাদ দিলে না! ক্ষুদ্র হলেও বড়ই নিষ্ঠুর, নির্মম তুমি। তবে তোমার মালিক আর আমাদের মালিক আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালার কাছে তোমার ক্ষমতা কোনো ক্ষমতাই নয়!

হে আল্লাহ! আপনি করোনাভাইরাস থেকে শাইখ আব্দুল কাইয়ুম সহ সবাইকে মুক্তি দিন, শাইখের খিদমাহকে কবুল করুন, আবার তাঁকে ইলমের খিদমাতে  ফিরিয়ে নিয়ে আসুন। 

আমিন। 

আপনার মতামত লিখুন :